1. bdweb24@gmail.com : admin :
  2. him@bdsoftinc.info : Staff Reporter : Staff Reporter
শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০২:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
চাঁদপুরে একের পর এক বেরিয়ে আসছে ভয়ঙ্কর রাসেল ভাইপার, আতঙ্ক আফগানিস্তানের বিপক্ষে লড়াকু পুঁজি ভারতের দেশে আবিষ্কৃত ২৯টি গ্যাস ক্ষেত্রের মধ্যে ২০টি উৎপাদনরত রাশিয়ার দুটি জ্বালানি ডিপোতে ড্রোন হামলায় আগুন বেনজীর ও আছাদুজ্জামানের সম্পদ নিয়ে যা বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শ্রমিকদের মৃত্যু নিয়ে প্রবাসীকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বললেন ‘হায়াত-মউত আল্লাহর হাতে’ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শনিবারের ছুটি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত চান্দিনায় স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার ওপর হা-ম-লার প্র-তিবাদে মানববন্ধন শুল্ক ও বাড়তি কর বিদেশি বিনিয়োগে বড় বাধা: পলক মিয়ানমারকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অর্পিতার ফ্ল্যাটে টাকা-সোনার সঙ্গে এবার মিলল সেক্স টয়!

রিপোর্টার
  • আপডেট : সোমবার, ১ আগস্ট, ২০২২
  • ১১৩ বার দেখা হয়েছে

বঙ্গনিউজবিডি ডেস্ক : সময় যত এগোচ্ছে ততই রহস্য বাড়ছে পার্থ চট্টোপাধ্যায় আর অর্পিতা মুখোপাধ্যায়কে ঘিরে। পার্থ ঘনিষ্ঠ মডেল-অভিনেত্রীর ফ্ল্যাট থেকে কোটি-কোটি টাকা, ভরি-ভরি সোনা শুধু নয় উদ্ধার হয়েছে চমকপ্রদ বস্তুও-দু’টি সেক্সটয়।

তার ফ্ল্যাট থেকে এই বস্তু উদ্ধারে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। যদিও কোনও একাকী নারীর ফ্ল্যাট থেকে সেক্সটয় উদ্ধার হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। তবে শুধু ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া সামগ্রী নিয়েই নয়, নেটিজেনরা মজেছে অর্পিতা-পার্থর সম্পর্ক নিয়েও।

বিভিন্ন সূত্র থেকে শোনা যাচ্ছে পার্থ-অর্পিতার রঙিন প্রেম-কাহিনিও। মডেল-অভিনেত্রীর সঙ্গে কথা বলার জন্য নাকি ভুয়া সিমকার্ড ব্যবহার করতেন রাজ্যের মন্ত্রী। রাত গভীর হলেই লং ড্রাইভে বেরিয়ে পড়তেন তারা। এমনকী, ছুটি পেলেই অর্পিতার মামার বাড়ি চলে যেতেন দু’ জনে।

এসএসসি দুর্নীতির তদন্তে নেমে পার্থ ঘনিষ্ঠ মডেল-অভিনেত্রীর হদিশ পেয়েছে ইডি। তার ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালাতেই চক্ষু চড়কগাছ। উদ্ধার হচ্ছে প্রচুর সোনাদানা, নগদ টাকা। মিলছে প্রচুর সম্পত্তির দলিলও। এরপরই প্রশ্ন উঠছে পার্থ-অর্পিতার সম্পর্কের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে।

ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইডি সূত্রে খবর, ২০১২ সালে অর্পিতাকে নিয়ে সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী। এখানেই শেষ নয়। অর্পিতার সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে ভুয়া নামে সিমকার্ডও নিয়েছিলেন পার্থ।

সূত্রের খবর, তিলজলার ভুয়ো ঠিকানা দিয়ে মহম্মদ সাব্বিরের নামে একটি সিমকার্ড তোলা হয়েছিল। যা ব্যবহার করতেন মন্ত্রী। সেই নম্বর থেকেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা চলত অর্পিতার সঙ্গে আলাপচারিতা। এদিন আদালতেও রিপোর্ট জমা করতে চলেছেন তদন্তকারীরা।

শুধু ফোনে কথাই নয়, রাত বাড়লেই দু’ জনে বেরিয়ে পড়তেন লং ড্রাইভে। পার্থ-অর্পিতার ঘনিষ্ঠ সূত্র মারফতই এমন তথ্য সামনে আসছে। তারা নাকি মাঝেমধ্যেই বারুইপুরের বেগমপুরের ‘বিশ্রাম’-এ বিশ্রাম নিতে যেতেন। লং ড্রাইভ বা ফোনে কথা নয়, ছুটি পেলে মাছও ধরতেন দু’ জনে।

জাঙ্গিপাড়ায় অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের মামার বাড়ি। সেখানে প্রায়শই যাতায়াত করতেন পার্থ। এমনকী সেখানকার এক পুকুর পাড়ে একসঙ্গে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাটাতেন। মাছ ধরতেন তারা।

জাঙ্গিপাড়ার বাসিন্দারা বলছেন, দুর্গাপুজোর সময় জাঙ্গিপাড়ায় দেখা যেত নাকতলা উদয়ন সংঘের উদ্যোক্তাকেও। তবে এসএসসি কাণ্ডে অর্পিতার নাম জড়াতেই তার মামার বাড়িতে তালা ঝুলেছে। বাড়ির সদস্যরা কোথায় গিয়েছেন তা এখনও অজানা। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ

© ২০২৩ bongonewsbd24.com